প্রাকৃতিক সৌন্দর্য বর্ধনে সেন্ট মার্টিনে লাগানো হচ্ছে গাছ

11

হেলাল উদ্দিন: কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার সেন্ট মার্টিন জেটিঘাটে অভিযান চালিয়ে ২৫টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করার পর সেখানে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য বর্ধনে অর্ধশতাধিক কাটবাদাম, ঝাউগাছ ও নারিকেল গাছের চারা লাগাচ্ছেন উপজেলা প্রশাসন।

গত শুক্রবার ২২ ডিসেম্বর দুপুর থেকে টেকনাফ উপজেলা নিবাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আদনান চৌধুরী ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ এরফানুল হক চৌধুরী নেত্বতে উচ্ছেদ করা খালী জায়গায় অর্ধশতাধিক কাটবাদাম, ঝাউগাছ ও নারিকেল গাছের চারা লাগানো হয়।

এর আগে বৃহস্পতিবার সেন্টমাটিন জেটিঘাট সংলগ্ন এলাকায় সরকারি খাস জায়গায় অবৈধভাবে দখল করে টিনশেড ও গোলপাতা দিয়ে নির্মাণ করা স্থাপনা ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান করে উচ্ছেদ করে।

ইউএনও এবং সহকারী কমিশনার পাঁচটি করে ১০টি গাছের চারা লাগান। অবশিষ্ট গাছগুলো ইউনিয়ন পরিষদ ও বিচকর্মীদের মাধ্যমে লাগানোর পাশাপাশি দেখভাল করার দায়িত্ব দেওয়া হয়। উচ্ছেদ করা জায়গায় লাল পতাকা টাঙ্গানো হয়েছে।

টেকনাফ উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আদনান চৌধুরী বলেন, সেন্টমার্টিনের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য বর্ধনের জন্য জেলা প্রশাসক মহোদযের নির্দেশনায় সরকারি খাস চর ভরাট জমিতে অবৈধভাবে নির্মিত ২৫টি দোকান উচ্ছেদ করা হয়। উদ্ধারকৃত জমি যাতে আবার অবৈধ দখল করতে না পারে, সেজন্য কাটবাদাম, ঝাউগাছ ও নারিকেল গাছের চারা লাগানো হয়।