টিকটকে পরিচয় থেকে প্রেম, অতঃপর ধর্ষণ: অভিযুক্ত ভুয়া আইনজীবী গ্রেপ্তার

11

চট্টগ্রামের সিইপিজেড (ফ্রী পোর্ট) এলাকার কোতোয়ালী থানাধীন স্টেশন রোডে এশিয়ান এস, আর আবাসিক হোটেলে নারী গার্মেন্টস কর্মীকে কথিত এক আইনজীবী ও নামধারী সাংবাদিক একাধিকবার ধর্ষণ করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত ভুয়া আইনজীবী কামরুল হাসান হৃদয়কে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার ২২ নভেম্বর রাতে নগরীর বন্দর থানাধীন ৩৮ নম্বর ওয়ার্ডের মধ্যম হালিশহর মাইজপাড়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে তাকে আটক করা হয়।

মামলা সূত্রে জানা যায়, অভিযুক্ত হৃদয়ের সাথে ৬ মাস আগে ধর্ষণের শিকার নারীর অনলাইনে টিকটকের মাধ্যমে পরিচয় হয়। কামরুল নিজেকে আইনজীবী ও সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে ওই নারীর সাথে তার টিকটক আইডির মাধ্যমে কথাবার্তা ও মোবাইল নাম্বার আদান প্রদান করেন। একপর্যায়ে তাদের মাঝে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। পরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই নারীকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন কামরুল।

অভিযোগের ভিত্তিতে সিএমপি কোতোয়ালী থানায় একটি মামলা হয়। কোতয়ালী থানার এসআই সজীব কুমার আচার্য একটি ফোর্স নিয়ে বুধবার রাতে মাইজপাড়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে কামরুলকে গ্রেপ্তার করে।

কামরুলের গ্রামের বাড়ি বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে। তিনি ২০২২ সালেও ভুয়া আইনজীবী, ব্যারিস্টার ও মফস্বলের এক পত্রিকার সাংবাদিক পরিচয়ে প্রতারণার দায়ে অভিযুক্ত হয়ে আটক ছিলেন বলে থানা সূত্রে জানা গেছে।