কৃষককে অপহরণ করতে এসে ধরা দুই রোহিঙ্গা, গণপিটুনিতে নিহত ১

12

হেলাল উদ্দিন, টেকনাফ প্রতিনিধি: টেকনাফের হোয়াইক্যংয়ের মিনাবাজারের পাহাড়ি এলাকায় কৃষককে অপহরণ করতে এসে জনতার হাতে ধরা পড়লো দুই রোহিঙ্গা অপহরণকারী। স্থানীয়দের গণপিটুনিতে গুরুতর আহত হন ওই দুই অপহরণকারী। পরে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ তাদের উদ্ধার করে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠিয়ে দেয় । সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক একজনকে মৃত ঘোষণা করেন।

সোমবার ৩১ জুলাই টেকনাফ উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের মিনাবাজারের পাহাড়ি এলাকার মালেকের ঘোনা নামক স্থানে এই ঘটনা ঘটেছে।

নিহত অপহরণকারী কুতুপালং ১নং ক্যাম্পের বাসিন্দা আজিমুল্লাহ ও আহত অপহরণকারী একই রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বাসিন্দা মোহাম্মদ হাশেম।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, স্থানীয় শাহ আলমের দুই ছেলে আবছার ও তার ছোট ভাই পাহাড় থেকে নিজেদের গৃহপালিত গরু নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে মালেকের ঘোনায় আসার সঙ্গে সঙ্গে অপহরণকারীরা আবছারকে ধরে দড়ি দিয়ে বেঁধে ফেলে। এসময় তার ছোট ভাই চিৎকার করলে তাদের পেছনে থাকা বাবা শাহ আলম এসে স্থানীয় জনতার সহযোগিতায় দুই রোহিঙ্গাকে ধাওয়া করে হাতে নাতে ধরে ফেলে। একপর্যায়ে দুই অপহরণকারীদের ধরে গণপিটুনি দেয় জনতা। পরে পুলিশে খবর দিলে, পুলিশ এসে দুজনকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন।

হোয়াইক্যং পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) রোকনুজ্জামান বলেন, অপহরণ করতে এসে দুই রোহিঙ্গা জনতার হাতে ধরা পড়ে। জনতার গণপিটুনিতে দুইজনে গুরুতর আহত হয়। তাদের চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক একজনকে মৃত ঘোষণা করেন। আরেকজন চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে। তাদের দুজনের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট আইনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।