‘নির্বাচনের মূল চ্যালেঞ্জ ভোটারদের কেন্দ্রে নিয়ে আসা’

23

ভোটাররা নির্বাচনে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন উল্লেখ করে জাতীয় পার্টি মহাসচিব মো. মুজিবুল হক চুন্নু বলেছেন, নির্বাচনের মূল চ্যালেঞ্জ হচ্ছে ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে নিয়ে আসা। আমরা চেয়েছি, ভোটাররা যেনে নির্বিঘ্নে ভোট কেন্দ্রে এসে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেন। আমাদের আশ্বস্ত করা হয়েছে, ভোটাররা নির্বাচনে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারবেন।

শুক্রবার ২৪ নভেম্বর দুপুরে জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান এর বনানীস্থ কার্যালয় মিলনায়তনে রংপুর ও রাজশাহী বিভাগের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার গ্রহণ এর মাঝে গণমাধ্যম কর্মীদের তিনি এসব কথা বলেন।

চুন্নু বলেন, জাতীয় পার্টিতে কোন পন্থী নেই। জাতীয় পার্টিতে পন্থী একটাই, জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের। আমরা সবাই এরশাদ পন্থী। তিনি বলেন, জাতীয় পার্টি প্রতিষ্ঠায় বেগম রওশন এরশাদ এর অনেক অবদান ও ত্যাগ আছে। তিনি নির্বাচন করলে, আমরা তাকে সব ধরনের সাহায্য সহযোগিতা করবো। বেগম রওশন এরশাদ ও সাদ এরশাদ এখনও মনোনয়ন ফরম নেননি।

তিনি আরও বলেন, বেগম রওশন এরশাদ গতকালও আমাকে ফোন করেছিলেন, আজ হয়তো তারা মনোনয়ন ফরম নিতে পারেন। হরতাল ও অবরোধের কারণে আমাদের অনেক মনোনয়ন প্রত্যাশী ঢাকায় আসতে পারেননি, তাদের জন্য ফরম বিতরণের সময় একদিন (আজ) বাড়ানো হয়েছে। বেগম রওশন এরশাদের জন্য কোন সময়ের বাধ্যবাধকতা নেই, তিনি যখন বলবেন তখনই মনোনয়ন ফরম দেয়া হবে। বেগম রওশন এরশাদ চাইলে, মনোনয়ন ফরম তার বাসায় পৌঁছে দেবো।

প্রায় সকল আসনেই জাতীয় পার্টির একাধিক মনোনয়ন ফরম বিতরণ হয়েছে বলেও জানান তিনি। চুন্নু বলেন, প্রত্যাশিত প্রার্থীদের ইন্টারভিউ চলছে, আশা করছি ২৭ নভেম্বর আমাদের চুড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করা হবে। কতদিন ধরে পার্টি করছেন এবং এলাকায় কতটা জনপ্রিয়তা আছে তা বিবেচনা করেই প্রার্থী মনোনয়ন দেয়া হবে।