উত্তরবঙ্গে শিল্পকারখানা ও কর্মসংস্থান সৃষ্টির আহ্বান বাণিজ্যমন্ত্রীর

11

দেশকে উন্নত-সমৃদ্ধ করার লক্ষ্যে উত্তরবঙ্গে বেশি করে শিল্পকারখানা ও কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহবান জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা টিপু মুনশি এমপি।

আজ সন্ধ্যায় রাজধানীর মানিক মিয়া এভিনিউয়ে সেচ ভবনে আয়োজিত রংপুর বিভাগ সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটির (২০২৩-২০২৬) অভিষেক অনুষ্ঠান প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা জানান।

বাণিজ্যমন্ত্রী জানান, উত্তরবঙ্গ অনেক সম্ভাবনাময় একটি অঞ্চল। ব্যবসা-বাণিজ্যের জন্য অনুকূল পরিবেশ বিরাজমান। কৃষি খাতে বিনিয়োগের করার ব্যাপক সুযোগ রয়েছে। ব্যবসায়ীরা এগ্রো ফুড প্রসেসিংসহ বিভিন্ন শিল্পকল-কারখানা তৈরি করে লাভবান হতে পারবে। ইতোমধ্যে অনেক বিনিয়োগকারী বিনিয়োগের আগ্রহ প্রকাশ করেছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

টিপু মুনশি বলেন, ভারত, ভুটানসহ আমাদের প্রতিবেশী দেশ ব্যবসা-বাণিজ্য ত্বরাণ্বিত করতে সৈয়দপুর এয়ারপোর্ট ব্যবহার করতে চায়। এই এয়ারপোর্টকে আন্তর্জাতিকমানে উন্নীত করতে এ অঞ্চলের রাজনীতিবিদ, আমলা, ব্যবসায়ীসহ সংশ্লিষ্টদের কাজ করার আহবান জানান।

তিনি আরো বলেন, বর্তমানে প্রতিদিন সৈয়দপুর বিমানবন্দরে ১৫-২০ ফ্লাইট উঠা নামা করছে।অথচ এখন সময় বলা হতো বিমানে উঠার মতো লোক পাওয়া যাবে না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে এবং দেশের মানুষ উন্নত জীবন উপভোগ করছে।

মন্ত্রী জানান, পঞ্চগড়ে এখন উন্নতমানের চা উৎপাদন হচ্ছে। দেশের ১৬-১৭ ভাগ চায়ের চাহিদা পূরণ করছে। প্রতিবছর উৎপাদন বৃদ্ধি পাচ্ছে। সম্প্রতি দেশের তৃতীয় চা নিলাম কেন্দ্রের উদ্বোধন করা হয়েছে। সেখানে অনেক মানুষের কর্মসংস্থান তৈরি হয়েছে।

টিপু মুনশি বলেন, উত্তরবঙ্গ হচ্ছে দেশের শষ্য ভান্ডার। ঘরে ঘরে খাবার আছে বলে খেয়ে শুয়ে থাকলে হবে না। আমাদের আরো বেশি সচেতন ও কৌশলী হতে হবে। এসময় এলাকার মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য সরকারি কর্মকর্তাসহ ব্যবসায়ী ও বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহবান জানান।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ বলেন রংপুর বিভাগের কর্মকাণ্ড সারা দেশে ছড়িয়ে দিতে হবে। সমিতির নবনির্বাচিত কমিটি সংগঠনকে সুসংগঠিত করে আরো সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে নেবে বলে আশাবাদ ব্যাক্ত করেন তিনি।

যে জাতি মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে স্বাধীনতা অর্জন করেছে সে জাতিকে কেউ পরাজিত করতে পারবে না উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পাশে থাকার জন্য দেশবাসীকে আহবান জানান সমাজকল্যাণ মন্ত্রী।

সাবেক সচিব ও রংপুর বিভাগ সমিতির সভাপতি মোঃ নুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ভূমি সচিব মোঃ খলিলুর রহমান ও রংপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফা অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন।

ট্যুরিস্ট পুলিশের উপ-মহা পুলিশ পরিদর্শক ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবুল কালাম আজাদ অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন। এসময় রংপুর বিভাগের সরকারি-বেসরকারি উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা ও ঢাকায় বসবাসরত বিভিন্ন পেশাজীবী ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত ২৫ মে ২০২৩খ্রি. রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশনে অনুষ্ঠিত বার্ষিক সাংধারণ সভায় রংপুর বিভাগ সমিতি ঢাকার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করা হয়। এরপর ১৩ জুন জেলা সমাজসেবা কার্যালয় কর্তৃক কমিটি অনুমোদনের পর ৭১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়।