বাউফলে বিপুল পরিমাণ দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার

10

বাউফল (পটুয়াখালী) প্রতিবেদক: পটুয়াখালীর বাউফলের কেশবপুর কলেজ ক্যাম্পাসের একটি কক্ষ থেকে বিপুল পরিমান দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করেছেন পুলিশ। শুক্রবার রাত ২টার দিকে পুলিশের একটি দল অভিযান চালিয়ে ওই অস্ত্র উদ্ধার করে। এসময় মো. আনিচুর রহমান তালুকদার (৪৮) নামের একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বাউফল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এটিএম আরিচুল হক বলেন, অিাভযানে একটি একনলা বন্দুক, ১টি পিস্তল, ৬ রাউন্ড কাতুর্জসহ ২৫টি দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

অস্ত্র উদ্ধারের বিষয় নিয়ে উপজেলার কেশবপুর ইউনিয়নে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। ২০২০ সালে কেশবপুর ইউপি চেয়ারম্যান সালেহ উদ্দিন পিকুর দুই ভাই যুবলীগ নেতা রুমন ও ইশাদ খুন হয়। ওই হত্যা মামলায় কেশবপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন লাভলুকেও আসামী করা হয়। এর পর থেকে কেশবপুরে পিকু ও লাভলু পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছিল। হত্যা মামলার বাদির পরিবারের ওপর একাধিক বার হামলার ঘটনাও ঘটেছিল। যার অভিযোগের তীর উঠেছিল সাবেক চেয়ারম্যান লাভলু ও তার অনুসারীদের ওপর।

কলেজ ক্যাম্পাসে অস্ত্র উদ্ধার প্রসঙ্গে কেশবপুর ডিগ্রি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ ও ইউপি চেয়ারম্যান সালেহ উদ্দিন পিকু বলেন, সাবেক চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন লাভলু ও তার অনুসারীরা প্রকাশ্য দিবালোকে আমার দুই ভাই রুমন ও ইশাদকে খুন করে। যে মামলা আদালতে চলমান। খুনের ঘটনার পর থেকে আসামীরা মামলা তুলে নিতে একাধিকবার হুমকি দিয়ে আসছিল। আমাকে এবং আমার ছোট ভাই জিয়া উদ্দিন সুজনকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা করেছিল। সেই চক্রটি কলেজ ক্যাম্পাসের পরিত্যক্ত কক্ষে অস্ত্র রেখে আমাদের ফাঁসানো চেষ্টা করছে। ওই অস্ত্রের সাথে আমি কিংবা আমার পরিবার জড়িত নয়। পুলিশ অধিকতর তদন্ত করলেই প্রকৃত ঘটনা বের হয়ে আসবে।

বাউফল থানার ওসি এটিএম আরিচুল হক জানান, আটক আনিচুর রহমানকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে। অস্ত্রের রহস্য উদঘটনে পুলিশের তদন্ত চলছে। তদন্ত সাপেক্ষেই পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।