সাংবাদিককে কুপিয়ে হত্যাচেষ্টা: দুই সাবেক চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার

12

আবদুর রহমান নোমান: ভোলার চরফ্যাশনের সাংবাদিক তৈয়্যবুর রহমানকে পিটিয়ে হত্যাচেষ্টা মামলায় দুই সাবেক চেয়ারম্যানসহ ৪ আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। লালমোহন থানায় মামলা হওয়ার একদিন পর বৃহস্পতিবার (২৭ জুলাই) রাত ৮টার দিকে লালমোহন থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে তাদেরকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তাররা হলেন- লালমোহন চরভূতা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান মো. হোসেন হাওলাদার, তজুমদ্দিন উপজেলার চাঁচড়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান রিয়াদ হোসেন হান্নান। অপর দুজন হলেন লর্ডহার্ডিঞ্জ ইউনিয়নের লোকমান হোসেন ও রমাগঞ্জ ইউনিয়নের আজিজ। শুক্রবার তাদেরকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

লালমোহন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাহবুবুর রহমান গ্রেপ্তার হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার বিকেলে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ভোলা পৌর শহর এলাকা থেকে আসামি রিয়াদ হোসেন (হান্নান) ও হোসেন হাওলাদার সহ ৪ আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকী আসামীদের ধরতে অভিযান অব্যাহত আছে।

উল্লেখ্য, বুধবার ২৫ জুলাই রাত ১০টার দিকে চরফ্যাশন উপজেলার সাংবাদিক তৈয়্যবুর রহমান লালমোহন আসার পথে ফুলবাগিচা রাস্তায় এই দুই চেয়ারম্যানসহ ১৬ জন তাকে পথরোধ করে অতর্কিত আক্রমণ করেন বলে লালমোহন থানায় মামলা করেন তৈয়্যবুর রহমান। মামলায় উল্লেখ করা হয়, দেশীয় বিভিন্ন অস্ত্রশস্ত্র দিয়ে তাকে এলোপাতাড়ি মারতে থাকে আসামীরা। তৈয়্যবুর রহমান নিজেকে বাঁচানোর চেষ্টা করলে দুর্বৃত্তরা চাপাতি দিয়ে কোপ দেয়। পরে সে মাটিতে পড়ে গেলে আসামীরা তার মুখ থেকে তিনটি দাঁত উঠিয়ে ফেলে মোবাইল ও নগদ টাকা ছিনিয়ে নেয়।

স্থানীয় লোকজন তৈয়্যবুর রহমানকে রক্তাক্ত জখম অবস্থায় উদ্ধার করে লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। এ ঘটনায় বুধবার তৈয়্যবুর রহমান বাদী হয়ে দুই সাবেক চেয়ারম্যানসহ ১৬ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ১০ জনের নামে লালমোহন থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

আহত সাংবাদিক তৈয়্যবুর রহমান উন্নত চিকিৎসার জন্য বর্তমানে ঢাকায় একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি আছেন। তিনি বর্তমানে দি বাংলাদেশ টুডের সংবাদদাতা হিসেবে কর্মরত রয়েছেন বলে জানান।

লালমোহন থানার ওসি মাহবুবুর রহমান জানান, সাংবাদিক তৈয়্যবুর রহমান বাদী হয়ে মামলা করায় গোপন সূত্রের মাধ্যমে দুই সাবেক চেয়ারম্যানকে ভোলা থেকে ও অপর দুই আসামীকে লালমোহনের বিভিন্ন জায়গা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে পূর্ব থেকে আরো একাধিক মামলা রয়েছে।