সেই আওয়ামী লীগ নেতাকে বহিষ্কার করার সুপারিশ

11

বাউফল (পটুয়াখালী) প্রতিবেদক: আইন পরিবর্তন করে হলেও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর দাবি করা সেই আলোচিত-সমালোচিত উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারন সম্পাদক আবদুল মোতালেব হাওলাদারের বিরুদ্ধে শাস্তিমুলক ব্যবস্থা নিতে আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এমপির কাছে সুপারিশ পাঠিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগ। গত ৯অক্টোবর পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি কাজী আলমগীর হোসেন ও সাধারন সম্পাদক আবদুল মান্নানের যৌথ স্বাক্ষরিত এ সুপারিশ আবেদন পাঠানো হয়। দলীয় ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন ও শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগের কারণ দর্শানোর নোটিসের জবাব সন্তোষজনক না হাওয়ায় শাস্তিমুলক ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করেন জেলা আওয়ামী লীগ।

গত ৩০ সেপ্টেম্বর বাউফল উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুল মোতালেব হাওলাদার তার ফেসবুক আইডিতে বিএনপি নেত্রীর বিদেশে চিকিৎসা দাবি করে পোস্ট করেন। ওই পোস্টে তিনি লিখেন, ‘আইন পরিবর্তন করে হলেও বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে বিদেশে চিকিৎসার সুযোগ দেওয়া হউক।’

আওয়ামী লীগ নেতার এমন পোস্ট মুহূর্তেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়। নিজ দলের নেতাকর্মীদের সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি। সাধারন সম্পাদকের পদ থেকে বহিষ্কার দাবি করেন দলীয় নেতারা। পরে তাকে দিন কার্যদিবসের মধ্যে কারণ র্দশানোর নোটিস দেন জেলা আওয়ামী লীগ। ৫ অক্টোবর ফেসবুক থেকে সেই পোস্ট তুলে নেন আওয়ামী লীগ নেতা মোতালেব।

এ বিষয় উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি হারুন অর রশিদ বলেন,উপজেলা আ.লীগের সাধারন সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল মোতালেব হাওলাদার খালেদা জিয়াকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর দাবি করে ফেসবুকে পোষ্ট দেওয়ায় তাতে দলীয় ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়েছে। তাকে বহিষ্কার করে দলকে কলঙ্ক মুক্ত করা হোক।

এ বিষয়ে জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি কাজী আলমগীর হোসেন বলেন, দলীয় ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন ও শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে তার বিরুদ্ধে শাস্তিমুলক ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদকের কাছে সুপারিশ পাঠানো হয়েছে।