তুলে নিয়ে যাওয়া সেই পিআরপি চেয়ারম্যান তরিকুল ছাড়া পেলেন

23

জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে থেকে সাদা পোষাকধারী পরিচয়ে তুলে নিয়ে যাওয়া জনতার অধিকার পার্টি (পিআরপি) চেয়ারম্যান তারিকুল ইসলাম আড়াই মাস পর ছাড়া পেয়েছেন।

গত ১২ নভেম্বর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অবরোধের সমর্থনে বিক্ষোভ মিছিল করে বিএনপি সমর্থিত জাতীয় সমমনা জোটের অন্যতম শরীক জনতার অধিকার পার্টি (পিআরপি)। কর্মসূচি শেষে দুপুর ১২ টার দিকে হেলমেট পরিহিত চারজন যুবক ঢাকা মেট্রো ল ৩৭১৩৯২ এই নাম্বারের একটি মটরসাইকেলে তাকে জোর পূর্বক তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। গণমাধ্যমে তুলে নিয়ে যাওয়া ভিডিও ফুটেজ প্রকাশিত হলে জানা যায় ওই যুবকরা ডিবির বিশেষ টিমের সদস্য ছিলো।

এরপর গত ১৩ নভেম্বর তরিকুলকে আদালতে হাজির করলে বিচারক তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ড শেষে তাঁকে কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়। ৬৭টি দিন কারাভোগের পর আজ ১৮ জানুয়ারি বিকেল চারটায় তিনি মুক্তি পান।

জেলগেটে তরিকুল সাংবাদিকদের বলেন, গত ২৮ অক্টোবর আমি বিএনপির কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করে রক্তাত্ব হয়েছি। এক সপ্তাহের মতো চিকিৎসায় ছিলাম। এরপর আবার সরকার পতনের কর্মসূচীতে রাজপথে নামি। গত ১২ই নভেম্বর যে যুবকরা আমাকে তুলে নিয়ে যায় আমি অনেক ভয় পেয়েছি আর কখনো ফিরে আসবো কিনা। তারা এসেই আমাকে কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই হ্যান্ডকাফ পরিয়ে ফেলে। তাৎক্ষনিক আশপাশের মানুষ এগিয়ে আসলে তারা নিজদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয় দেন। তখন সাধারণ মানুষ পিছু হটে। সেদিন যদি গণমাধ্যমে আমাকে তুলে নিয়ে যাওয়ার ভিডিও প্রকাশ না হতো আল্লাহই ভালো জানেন আমার কপালে কী হতো।