টেকনাফে জমির দলিলসহ ঘর পেয়ে মহাখুশি ৬৪ পরিবার

15

হেলাল উদ্দিন: কক্সবাজারের টেকনাফে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের মুজিব বর্ষের ঘর পেল আরও ৬৪ পরিবার। বুধবার সকালে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারে জমি ও গৃহ হস্তান্তর কার্যক্রম উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

টেকনাফ উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে ভূমিহীন-গৃহহীন পরিবারে জমি ও গৃহ হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মোঃ শাহীন ইমরান। উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইউএনও মোঃ কামরুজ্জামানের সভাপতিত্বে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ এরফানুল হক চৌধুরীর পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, টেকনাফ পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব আবদুর রহমান বদি, উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল আলম, জেলা পরিষদ সদস্য জাফর আহমদ, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান তাহেরা আকতার মিলি,উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি নুরুল বশর, সাধারণ সম্পাদক মাহবুব মোরশেদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা জহির হোসেন এমএ প্রমুখ। এ সময় জনপ্রতিনিধি, বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী, গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ,সাংবাদিক ও ভূমিহীন-গৃহহীন পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় চতুর্থ পর্যায়ে (২ ধাপ) টেকনাফ উপজেলায় ৬৪টি ঘর সহ মোট ৫২৩ জন ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারে মাঝে প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর হস্তান্তর করা হয়েছে। এর আগে টেকনাফ উপজেলাকে ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণা করা হয়।

জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ শাহীন ইমরান বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকীতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষণা ‘মুজিববর্ষে বাংলাদেশের একজন মানুষও গৃহহীন থাকবেনা’। প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ঘোষণা অনুযায়ী আপনাদের বিনামূল্যে জমি ও ঘর উপহার দেওয়ার পাশাপাশি টেকনাফ উপজেলাকে ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণা করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর এ উপহার আপনারা যত্ন করে রাখবেন, ঘরে থাকবেন। বাচ্চাদের ঠিকমত পড়াশোনা করাবেন। যেকোন সমস্যা হলে আমাদেরকে জানাবেন। এরপরেও যদি ভুলক্রমে গৃহহীন কেউ থেকে থাকে তাহলে আমরা তাদেরকেও সহযোগিতা করে যাব। পরিশেষে তিনি প্রধানমন্ত্রীর জন্য সকলের কাছে দোয়া কামনা করেন।

অনুষ্ঠান শেষে ভূমিহীন-গৃহহীন পরিবারের সদস্যদের মাঝে ঘরের চাবি ও দলিল হস্তান্তর করার সময় জনপ্রতি নগদ ৫০০ টাকা করে দেন সাবেক এমপি আবদুর রহমান বদি।