জবিতে পরিচালক খন্দকার মোন্তাসির হাসানের তিন বছরে আই.এম.এল

13

জাহাঙ্গীর আলম, জবি প্রতিনিধি: ২০১৭ সালে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউট (আই.এম.এল)এ বি.এ অনার্স ইন ইংলিশ ল্যাংগুয়েজ চালু হওয়ার পর কেটে গেছে অর্ধ যুগ। এর মধ্যে পরিচালক হয়েছেন দুজন। প্রথম পরিচালক ছিলেন অধ্যাপক ড. প্রতিভা রানী কর্মকার এবং দ্বিতীয়বার দায়িত্ব পালন করছেন সহযোগী অধ্যাপক খন্দকার মোন্তাসির হাসান।

২০২০ সালের ০৫ অক্টোবর আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউট (আইএমএল) এর পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন সহযোগী অধ্যাপক খন্দকার মোন্তাসির হাসান। আজ ০৩ অক্টোবর, ২০২৩ পরিচালক হিসেবে তার মেয়াদ শেষ হতে যাচ্ছে।

২০১৭ সালে ইনস্টিটিউটের যখন যাত্রা শুরু, সময়টা তখন মোটেও মসৃণ ছিল না। ছোট ক্যাম্পাস, জায়গার সংকট, বাজেট সীমাবদ্ধতা সহ সবকিছু মিলেয়ে ইনস্টিটিউট কে সামনে এগিয়ে নিয়ে যাওয়াটা ছিলো ভয়ংকর স্বপ্নের মতো। বিগত ছয় বছরে আইএমএল কতটুকু সাফল্য অর্জন করেছে সেই গল্প বলেছেন আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউট এর বর্তমান পরিচালক ও সহযোগী অধ্যাপক খন্দকার মোন্তাসির হাসান।

তিনি বলেন,” প্রতিষ্ঠা লগ্নে আমরা মাত্র চারজন শিক্ষক ছিলাম।রুম সংকট ও শিক্ষক সংকটের মধ্যেও সাফল্যের সাথে প্রথম পরিচালক তার মেয়াদ শেষে করেন। তারপর আমাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়, যার অর্ধেক সময় করোনা মহামারীতে কেটেছে। এসময়ের মধ্যে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতায় আই.এম.এল-এ নতুন করে তিনজন লেকচারার নিয়োগ, নতুন করে ক্লাস রুম ও শিক্ষকদের রুম সংখ্যা বাড়ানো, প্রত্যেক শিক্ষক এবং কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য আলাদা-আলাদা কম্পিউটারের ব্যবস্থা করেছি।

মাস্টার্স ইন ইংলিশ ল্যাংগুয়েজ টিচিং (এম.এ ইন ই.এল.টি), এম.ফিল এবং পিএইচডি ডিগ্রি প্রোগ্রাম অনুমোদন হয়েছে যার মধ্যে প্রথম ব্যাচ মাস্টার্স শেষ পর্বে। এম ফিল ও পি এইচ ডি তে শিক্ষার্থী ভর্তির অপেক্ষায়। এছাড়া সার্টিফিকেট কোর্স ইন স্প্যানিশ ল্যাংগুয়েজ আগামী বছরের জানুয়ারীতে শুরু করতে পারব বলে আশা রাখছি।

তিনি আরো বলেন, এদেশে ইংরেজি ভাষা শিক্ষার ক্ষেত্রে দক্ষ শিক্ষকের অভাব রয়েছে। আই এম এল প্রতিষ্ঠার একটি গুরুত্বপূর্ণ লক্ষ্য হল দক্ষ ইংরেজি শিক্ষক তৈরি, যারা এদেশে ইংরেজি ভাষা শিক্ষার ক্ষেত্রে অবদান রাখবে। এই লক্ষের দিকে ইন্সিটিউট দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে।

আইএমএল শুধু একটা ইন্সটিটিউট না, এটা একটা পরিবার আর আমার প্রথম গুরুত্বপূর্ণ কাজ সকলের সাথে কোর্ডিনেশন করা। বর্তমান সময়ে শিক্ষাব্যবস্থা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা’র নেতৃত্বে আধুনিক ও স্মার্ট হতে শুরু করেছে। আই.এম.এল এটা থেকে বঞ্চিত নয়। প্রযুক্তিগতভাবে আমরা যেকোনো সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে পূর্বের তুলনায় অনেক বেশি সক্ষম। আই.এম.এল এর অগ্রযাত্রাই সার্বিক সহযোগিতার জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করি উপাচার্য ড. মোঃ ইমদাদুল হক স্যার ও ট্রেজারার অধ্যাপক ড. কামাল উদ্দিন স্যার সহ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে। আমাদের এখন তিনটি ক্লাস রুম আছে, রুম পার্টিশন ও সেমিনার প্রকল্প প্রক্রিয়াধীন।”

বর্তমান পরিচালক খন্দকার মোন্তাসির হাসান পরবর্তী পরিচালক যিনি হবেন তার প্রতি আশা রেখে বলেন, আমরা আধুনিক ভাষা ইন্সটিটিউটকে বরাবর একটি পরিবার হিসেবে পরিচয় দিয়ে আসছি। এ পরিবার শিক্ষক শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা – কর্মচারী সকলকে নিয়ে।ইতোপূর্বে সামান্য ভুল বোঝাবুঝি হলেও আমরা নিজেরাই ঐক্যমতে পৌঁছে সকল সমস্যার সমাধান করেছি। পরবর্তী পরিচালক যিনি হবেন তার কাছে আমার প্রত্যাশা থাকবে তিনি যেন পরিবারের ঐক্য আরও বৃদ্ধি করেন এবং আমাদের চলমান সাফল্যের ধারাকে ধরে রাখেন। বিশেষ করে অন্যান্য আধুনিক ভাষার উপরে কোর্স চালু করা, ক্লাসরুম ফেসিলিটিস আরও বৃদ্ধি করাসহ যেকোন ধরনের সংকট মোকাবিলায় তিনি কাজ করবেন বলে আশা ব্যক্ত করছি।