গণপূর্ত কর্মকর্তার লাশ মিলল শ্বশুরবাড়ীর আম গাছে

10

আহমেদ শরীফ রনি: নেত্রকোনায় শ্বশুর বাড়ির আমগাছে ঝুলন্ত অবস্থায় দেলোয়ার হোসেন (৪০) নামে এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ শুক্রবার সকালে ১০টার দিকে সদর উপজেলার বামুনমহা গ্রাম থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

দেলোয়ার হোসেন সদর উপজেলার কাওয়ালীকোনা গ্রামের আব্দুল হামিদের ছেলে। তিনি এক মাস আগে প্রশাসনিক কর্মকর্তা পদে পদোন্নতি পেয়ে ঢাকায় বদলি হন। এর আগে নেত্রকোনা জেলা গণপূর্ত কার্যালয়ে (সাঁটলিপি) মুদ্রাক্ষরিক পদে কর্মরত ছিলেন।

নেত্রকোনা সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম প্রিয়দেশ নিউজ কে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ধারণা করা হচ্ছে, কাউকে না জানিয়ে রাতে হয়তো কোনো এক সময় ঢাকা থেকে এসে দেলোয়ার শ্বশুর বাড়ির সামনে ফাঁসি দিয়েছেন। পারিবারিক কলহও থাকতে পারে।

ওসি আরও বলেন, ‘সবকিছু মাথায় রেখে তদন্ত করা হচ্ছে। লাশ উদ্ধার করে সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।’

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গণপূর্তের প্রশাসনিক কর্মকর্তা পদে দেলোয়ার হোসেন বদলির পর স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে ঢাকা গেলেও তাদের আবার বামুনমহা গ্রামে শ্বশুর বাড়িতে রেখে যান। ধারণা করা হচ্ছে, তাদের মধ্যে পারিবারিক কিছু দ্বন্দ্বও ছিল। এত দিন দেলোয়ার একাই ঢাকাতেই ছিলেন।

আজ (শুক্রবার) সকাল ৯টার দিকে প্রতিবেশীরা আম গাছে দেলোয়ারকে ফাঁস লাগানো অবস্থায় দেখতে পান। কাউকে না জানিয়ে তিনি ঢাকা থেকে এসেছেন। পরে তাদের ডাক–চিৎকারে স্ত্রীসহ শ্বশুর বাড়ির লোকজন এসে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।